31.3 C
Agartala
Thursday, July 11, 2024
- Advertisemet -spot_img

বাবার পরই ছেলের মৃত্যু, মর্মান্তিক ঘটনা পানিসাগর উত্তর দেওছড়া ১নং ওয়ার্ড এলাকায়

শ্যামলী ত্রিপুরা প্রতিনিধি,পানিসাগর,১৮ জুন||সন্ধ্যা পাঁচটা নাগাদ উওর জেলার পানিসাগর মহকুমার অন্তর্গত দেওছড়া গ্রামের নিজ বাড়ি থেকে উদ্ধার হয় এক যুবকের ঝুলন্ত মৃত দেহ।ঘটনার বিবরণে জানা যায় যে,দেওছড়া এক নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা মৃত গোবিন্দ দেব নাথ এর মধ্যম পুত্র গৌতম দেব নাথ নিজ ঘরের দরজা জানালা বন্ধ করে গলায় গামছা দিয়ে ফাঁসিতে আত্মহত্যা করে।জানা গেছে মৃত গৌতম এর পিতা বিগত প্রায় দুই মাস পুর্বে চারুপাশা এলাকায় রেল দপ্তরের বৈদ্যুতিক লাইন প্রহরারত অবস্থায় রেলে কাটা পরে মারা যায়।পিতার মৃত্যুর খবর পেয়ে কর্মস্থল ব্যাঙ্গালোর থেকে নিজ বাড়িতে এসে মৃত পিতার অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া সম্পন্ন করে কিছুটা দিন বাড়িতেই থেকে যায়।পরিবারের লোকজনেরা জানান পিতার মৃত্যুর খবর পেয়ে বাড়িতে এসে গৌতম সারাক্ষন নাকি অন্য মনস্ক অবস্থায় নিরব থাকতো।প্রয়োজন ছাড়া কারোর সাথে কোন কথা বলতো না।এমনকি বিগত পনেরো কুড়ি দিন পুর্বে ওর নিজের মোবাই নিজে থেকেই মাঠিতে ফেলে ভেঙে ফেলে।পিতার মৃত্যুর পর নিকটাত্মীয়ের বাড়িতে শাকান্ন ভোজনের নিমন্ত্রণ থাকা সত্বেও গৌতমের অন্য দু ভাই সহ বোন বোনের জামাই ঐ বাড়িতে নেমন্তন্ন খেয়ে সন্ধ্যা পাঁচ নাগাদ গৌতম কে ডাকা ডাকি করে ঘরের ভিতর থেকে দরজা বন্ধ পাওয়া সহ কোন উওর না মিলাতে সন্দেহ বশত পিছনের একটি জানালা ভেঙে দেখতে পায় গলায় গামছা দিয়ে ফাঁস লাগিয়ে গৌতম ঝুলে রয়েছে।পরিবার পরিজনদের আর্ত চিৎকারে ছুটে আসে আশপাশ এলাকার লোকজন।তড়িঘড়ি খবর পাটানো হয় পানিসাগর থানাতে।খবর পেয়ে পানিসাগর থানার পুলিশ ঐ বাড়িতে পৌছায় এবং মৃতদেহ নামিয়ে ময়না তদন্তের জন্য নিয়ে আসে পানিসাগর মহকুমা হাসপাতালের মর্গে।মৃত দেহ নিয়ে আসাতে রাএি হওয়াতে আইনি প্রক্রিয়া মোতাবেক আজ ১৮ ই জুন দুপুরে ময়না তদন্ত শেষে মৃতদেহ তুলে দেওয়া হয় পরিবার পরিজনদের হাতে।ধারনা করা হচ্ছে ব্যাক্তিগত সমস্যায় জর্জরিত হয়ে দীর্ঘদিন যাবৎ অধিক হতাশাগ্রস্ত হয়ে নিজে থেকেই আত্মহত্যার পথ বেছে নেয়।বিগত দুই মাসের অন্তর রেলে কাটা পরে পিতার মৃত্যুর রেশ কাটতে না কাটতেই ফের একই পরিবারের পুএের ফাঁসিতে মৃত্যুতে গোটা পানিসাগর মহকুমা থেকে শোকের ছায়া নেমে আসে।

Related Articles

যোগাযোগ রেখো

82,829ভক্তমত
834অনুগামিবৃন্দঅনুসরণ করা
1,320গ্রাহকদেরসাবস্ক্রাইব

সাম্প্রতিক প্রবন্ধসমূহ