27.7 C
Agartala
Thursday, July 11, 2024
- Advertisemet -spot_img

ব্রিটিশ আমলের আইনের উপর পর্দা পড়ে, নতুন ফৌজদারি আইন ১ জুলাই থেকে কার্যকর!

শ্যামলী ত্রিপুরা প্রতিনিধি,পানিসাগর,১ জুলাই ||সকাল এগারো ঘটিকায় উওর জেলার পানিসাগর আরক্ষা প্রশাসনের ও,সি এর কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয় ভারতীয় নতুন ফৌজদারি আইনের বাস্তবায়ন কে ঘিরে শুভ উদ্ভোদনী অনুষ্ঠান।এতে উপস্থিত ছিলেন পানিসাগর মহকুমার ভারপ্রাপ্ত পুলিশ আধিকারিক বিজয় সেন।উপস্থিত ছিলেন উওর জেলার পাব্লিক প্রসিকিউটর সুদর্শন সিনহা,পানিসাগর নিবির শিশু উন্নয়ন আধিকারিক আবিদ হুসেইন,বিশিষ্ট সমাজ সেবি ধনঞ্জয় দাস, নিরুপম দেব সহ পানিসাগর বাজার ব্যাবসায়ী সমিতির সভাপতি বিজিত রায় এবং সম্পাদক কৃষ্ণপদ রায়,পানিসাগর আরক্ষা প্রশাসনের ও,সি দেবজিৎ চ্যাটার্জি,সেকেন্ড ও,সি হরেন্দ্র দেব্বর্মা,বরিষ্ঠ সাংবাদিক দয়ানন্দ চৌধুরী এবং রমাকান্ত দেব নাথ সহ অন্যান্য বিশিষ্ট জনেরা।বর্তমান ভারতবর্ষে বিগত ব্রিটিশ শাসন কাল থেকে প্রযোজিত আইন কানুনের উপর নির্ভর করে বাস্তবায়িত আইন কানুনের প্রতি আস্তা রেখে ভারতীয় সরাষ্ট্রমন্ত্রক নতুন নতুন আইন প্রণয়নের মাধ্যমে ভারত বর্ষের সাধারণ জনগনের সুবিধার্থে আইন প্রনয়ন করেন।স্বাধীনতার পূর্ববর্তী সময় থেকে আই,পি,সি ধারায় ৫১১ টি ধারাকে পরিবর্তন করে সংযোজিত করে ৩৫৮ টি ধারায় কার্যকর করা হয়।পাশাপাশি সি,আর,পি,সি ধারায় ৪৮৪ টি ধারাকে পরিবর্তন করে নুতন করে বর্ধিত ৫৩১ টি ধারায় রুপান্তর করা হয়।বর্তমান ভারতবর্ষে বিগত দিনের আইন কানুনের প্রতি শ্রদ্ধা রেখে ভারতীয় সরাষ্ট্র মন্ত্রক ভারতীয় আইন কানুন কে তিন টি পর্যায়ে বিভক্ত করে।এগুলি হলো যথাক্রমে ভারতীয় নাগরিক সুরক্ষা সংহীতা,ভারতীয় ন্যায় সংহীতা এবং ভারতীয় সাক্ষ্য অধিনিয়ম।বর্তমান ভারতীয় আধুনিক সভ্যতার সাথে সামঞ্জস্য রেখে ভারতীয় আইন মন্ত্রক নিত্য নতুন আইন কানুন প্রনয়ণের মাধ্যমে ভারতবাসির কল্যাণে আইন কানুন প্রনয়ণ করেন।পুরাতন সি,আর,পি,সি ধারাকে পরিবর্তন করে নতুন আইন সংযোজনের মাধ্যমে পুলিশ কে বিগত দিনের ন্যায় ১৪ দিনের পরবর্তীতে ৬০ দিনের মধ্যে তদন্ত সাপেক্ষে আসামিকে এরেস্ট করতে পারবে।পাশাপাশি অভিযুক্ত আসামীর পুরাতন ইতিহাসের ভিওিতে হ্যান্ড কাপ বাধ্যতামূলক করা হয়েছে।অভিযুক্ত আসামিকে গ্রেফতার করার পরবর্তী সময়ে পুলিশ আসামির বাড়িতে খবর পাটানো বাধ্যতামূলক ভাবে নিশ্চিত করা হয়েছে।দেশের প্রতিটি থানায় থানায় নূন্যতম এ,এস,আই পর্যায়ের ডেজিগনেটেড পুলিশ অফিসার দ্ধারা প্রতি দিনের রুজু করা মামলার বিবরণ ডিসপ্লে বোর্ডে উন্মুক্ত করতে হবে।ছোট খাটো বিষয়ে মামলা মোকদ্দমায় ম্যাজিস্ট্রেট নূন্যতম জরিমানা দশ হাজার টাকা থেকে বর্ধিত করে পঞ্চাশ হাজার টাকা পর্যন্ত বর্ধিত করা হয়েছে।বিগত দিনের ন্যায় প্রতিটি মামলা চলাকালীন সময়ে নির্ধারিত তারিখে সমন কৃত সাক্ষী আদালতে সাক্ষ্য প্রদানে হাজির না হলে ম্যাজিক কতৃক মামলার ধারাবাহিকতা সুনানি কার্যকর করা হবে।মহিলা সংক্রান্ত অপরাধ কিংবা ধর্ষন মামলার তদন্তে মহিলা ম্যাজিস্ট্রেট সহ মহিলা পুলিশ অফিসার দিয়ে তদন্ত কার্য সম্পন্ন করতে হবে।পাশাপাশি যে কোন মামলায় আদালতে হাজির হওয়া সাক্ষীর নিরাপওা সুনিশ্চিত করা পুলিশের বাধ্যতামুলক করা হয়েছে।যে কোন মামলায় পুলিশ আসামী কে বিগত দিনের ন্যায় ১৪ দিনের বাধ্যবাধকতার পরিবর্তে তদন্ত সাপেক্ষে বর্তমানে ৯০ দিনের রিমান্ডের সময় সীমা বর্ধিত করেছে।তবে যে কোন মামলায় অভিযুক্ত আসামিকে ৯০ দিনের মাথায় জামিনে মুক্তি দিতে বাধ্যতামূলক করা হয়েছে।এছাড়াও তিন বৎসরের নিছে শাস্তি অপরাধ মামলায় অপরাধীকে পুলিশি গ্রেফতারে বিধি নিষেধ আরোপ করা হয়ছে।যে কোন মামলায় অভিযুক্ত পলাতক আসামির ক্ষেত্রে আদালত পর পর তিন বার ওয়ারেন্ট ইস্যু করে ম্যাজিস্ট্রেট কতৃক ইলেকট্রনিক মিডিয়া কিংবা প্রিন্ট মিডিয়ায় প্রচারের মাধ্যমে অভিযুক্ত আসামি কে শাস্তি ঘোষণা করার আদেশ প্রদান করেন।এই ধরনের নিত্য নতুন আইন কানুন প্রনয়ণের মাধ্যমে দেশ জোরে সাধারন জনগনের পাশে দাড়িয়ে ভারতীয় আইন কানুন কে নিত্য নতুন ধারায় প্রণয়ন করাকে কেন্দ্র করে গোটা ভারত বর্ষে জোরে ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনা পরিলক্ষিত হচ্ছে।

Related Articles

যোগাযোগ রেখো

82,829ভক্তমত
834অনুগামিবৃন্দঅনুসরণ করা
1,320গ্রাহকদেরসাবস্ক্রাইব

সাম্প্রতিক প্রবন্ধসমূহ