25.4 C
Agartala
Saturday, April 13, 2024
- Advertisemet -spot_img

নাবালিকা শ্লীলতাহানি, ২০ দিনের মাথায় আসামি ধরতে ব্যর্থ দামছড়া থানার পুলিশ বাবুর

শ্যামলী ত্রিপুরা প্রতিনিধি,২৭ ডিসেম্বর।। রাজ্যে নারী ঘটিত অপরাধের মাএা ক্রমাগতই হু হু করে বৃদ্ধিপেয়ে চলেছে দিনের পর দিন।এর থেকে রেহাই পাচ্ছে না বিধবা মহিলা থেকে শুরু করে স্বামী পরিত্যাক্তা মায়েরা,এমনকি গৃহবধু সহ স্কুল পড়ুয়া ছাএি সহ নাবালিকা কন্যারাও।অথচ রাজ্যে ঘটে যাওয়া ধর্ষন কান্ড সহ শ্লীলতাহানির ঘটনায় অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে আদালতের দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তি প্রদানের পরও প্রসাশনিক বিধানকে বৃদ্ধাঙুল দেখিয়ে ঘটে চলেছে একের পর এক নারী ঘটিত অপরাধ।এমনই একটি নাবালিকা শ্লীলতাহানির ঘটনার সাক্ষীহয়ে রইলো উওর জেলার জনগন।এই নিয়ে যদিও পুলিশি ব্যার্থতার স্বচিএই ফুটে উঠছে বার বার।ঘটনাটি ঘটে উওর জেলার জানজাতি অধ্যুষিত দামছড়া এলাকায়।ঘটনার বিবরনে যানা যায় যে,এগারো বছরের এক নাবালিকা কন্যা শ্লীলতাহানির স্বীকার হয় এক দুর্বৃত্তের দ্বারা।জানা গেছে পাশ্ববর্তী রাজ্য আসামের কাছার জেলার বাজারি ছড়া থানাধীন জের জেরি এলাকার বাসিন্দা কমরুল হক পেষাগত কর্মের সন্ধানে দামছড়া এলাকায় বসবাসরত অবস্থায় ঐ নাবালিকাকে বাড়িতে অবিভাবিকার অনুপস্থিতির সুযোগ বুঝে নাবালিকা কন্যার স্নানের দৃশ্য মোবাইলে ক্যামেরা বন্ধি করে বিগত দোসরা ডিসেম্বর তারিখে জোর পূর্বক শ্লীলতাহানি সহ ধর্ষন করার চেষ্টা করে।নাবালিকা কন্যার চিৎকারে আশপাশ এলাকার লোকজন ছুটে এলে অভিযুক্ত লম্পট বাড়ি ছেড়ে পালিয়ে যায়।ঘটনার পরপরই বাড়িতে এসে নাবালিকা কন্যার মুখ থেকে সবকিছু সবিস্তারে শুনে ঐ দিন রাএিতেই নির্যাতিতা নাবালিকা কন্যাটির মা দামছড়া থানাতে অভিযুক্তের বিরুদ্ধে মৌখিক ভাবে অভিযোগ জানায়।তবে অভিযোগ উঠে যে,দোসরা ডিসেম্বর ঘটনার দিন রাএিতে নাবালিকা কন্যা শ্লীলতাহানির ঘটনায় মৌখিখ ভাবে দামছড়া থানায় অভিযোগ জানানো সত্বেও দামছড়া থানার ও,সি কেইসটি রেজিস্ট্রি না করে কেইসটি রেজিস্ট্রি করে ছয়ই ডিসেম্বরে।এই মর্মে দামছড়া থানা 21/DMC PS/448/354(B) POCSO ধারায় একটি মামলা নেয়।কেইসটি রেজিস্ট্রি করার পরও দামছড়া এলাকায় অভিযুক্ত লম্পট ঘুরাঘুরি করলেও দামছড়া থানার খামখেয়ালি পনায় অভিযুক্ত লম্পট ঘা ডাকাদিতে সক্ষম হয়।এমনকি ঘটনার কুড়ি দিন পেরিয়ে গেলেও দামছড়া থানার পুলিশ দায়সারা ভাবে নাবালিকা কন্যার বাড়িতে গিয়ে তদন্ত করে আসলেও অভিযুক্ত কে আটক করতে সক্ষম হয় নি।এমতাবস্থায় নির্যাতিতা নাবালিকা কন্যাটির জন্মদাএী মা অসহায় অবস্থায় নাবালিকা কন্যার দৈহিক শ্লীলতাহানির বিরুদ্ধে অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করে সঠিক শাস্তি বিধানের আর্জি নিয়ে মহকুমার সংবাদ মাধ্যমের স্বরনাপন্ন হয়।অভিযোগ কারীর অভিযোগ মুলে মহকুমার সংবাদ কর্মীরা দামছড়া থানার ও,সি সত্য বমন দেব্বর্মার সাথে একান্ত সাক্ষাতে জানতে পারে যে,দামছড়া থানার পুলিশ নাকি অভিযুক্তের বিরুদ্ধে তল্লাশি অভিযান অব্যাহত রেখেছে,তবে তাকে নিকি খুজে পাওয়া যাচ্ছে না।স্থানাীয় এলাকার শুভ বুদ্ধি সম্পন্ন জনগন সহ নির্যাতিতা নাবালিকা কন্যার মায়ের অভিযোগ ছয়ই ডিসেম্বরে দামছড়া থানার অভিযোগ দায়ের করা সত্বেও অভিযুক্ত লম্পট প্রকাশ্যে দামছড়া এলাকায় বুক ফুলিয়ে ঘুরাফেরা করলেও স্থানীয় কতিপয় সমাজদ্রোহীদের আসকারা পেয়ে দামছড়া থানার পুলিশ অভিযুক্তকে পাকরাও করেনি।ঘটনার প্রায় কুড়ি দিন অতিবাহিত হওয়ার পর স্থানীয় সংবাদ মাধ্যমের জিজ্ঞাসাবাদে এখন বলছে অভিযুক্ত পলাতক।সময়ের কাজ সময়ে না করাতে দামছড়া থানার পুলিশের ভূমিকায় বেজায় ক্ষুব্ধ দামছড়া এলাকার সাধারন জনগন।এখন দেখার অভিযুক্তের বিরুদ্ধে দামছড়া থানার পুলিশ কি ভুমিকা গ্রহন করেন।

Related Articles

যোগাযোগ রেখো

82,829ভক্তমত
834অনুগামিবৃন্দঅনুসরণ করা
1,320গ্রাহকদেরসাবস্ক্রাইব

সাম্প্রতিক প্রবন্ধসমূহ