26.1 C
Agartala
Wednesday, June 19, 2024
- Advertisemet -spot_img

ডোর টু ডোর এক বিলিতি মদ কারবারি কে জালে তুলে পানিসাগর থানার পুলিশ

শ্যামলী ত্রিপুরা প্রতিনিধি,পানিসাগর ৯ই জুন ||গোপন সংবাদের ভিওিতে উৎপেতে বসে অবৈধ ডোর টু ডোর এক বিলিতি মদ কারবারি কে জালে তুলে পানিসাগর থানার পুলিশ।বিগত বেশ কিছুদিন যাবৎ কাল ধরে পানিসাগর মহকুমার পানিসাগর,বিলথৈ, চামটিলা,জলাবাসা পদ্ববিল,উপ্তাখালি, রামনগর সহ সন্নিহিত প্রতিটি জায়গায় ডোর টু ডোর হোম ডেলিভারি বয়দের মাধ্যমে বিলিতি মদ পৌঁছে যাচ্ছে নিজ নিজ বাড়ি ঘর সহ বিভিন্ন অফিস কাছারিতে।বিশেষ করে পানিসাগর মহকুমার বিস্তির্ণ অঞ্চল জোরে ঘরে বসে অনলাইনে অর্ডার করলেই ঘরে পৌঁছে যাচ্ছে মদ সহ বিভিন্ন ধরনের নেশা সামগ্রী।পানিসাগর নগর এলাকা সহ আশপাশ গ্রামীণ এলাকায় এই ধরনের বানিজ্য সন্ধ্যা হতেই ক্রমান্বয়ে বৃদ্ধি পেতে থাকে।বিগত দিনে পানিসাগর মহকুমার জলাবাসাতে একটি বিলিতি মদের কাউন্টার থাকাতে গোটা পানিসাগর জোরে অবৈধ বিলিতি মদের বার বারন্ত অনেকাংশেই কম ছিলো।বর্তমানে সেই কাউন্টারটি বন্ধ হয়ে পড়াতে পানিসাগর মহকুমার চামটিলা সহ আশপাশ এলাকা গজিয়ে উটতে শুরু করেছে ভেজাল মদ তৈরির গোপন কারখানা।এই ধরনের ভেজাল বিলিতি মদ খেয়ে অসুস্থ হয়ে অকালে ঝরে যাচ্ছে তরতাজা তরুনেরা।লোক মুখে শুনাজায় বর্তমানে পানিসাগরে একটি বৈধ বিলিতি মদের কাউন্টার দেওয়ার সিদ্ধান্ত হওয়া সত্বেও নাকি স্থানীয় বিধায়ক বিনয় ভুষন দাস এর সদিচ্ছায় কাউন্টার টি বসতে দেওয়া হচ্ছে না।এরই ফাকে ভেজাল মদ কারি সহ অবৈধ কারবারিরা দিবা রাএ একাকার করে বহাল তবিয়তে এই ধরনের বানিজ্য চালিয়ে গেলেও সব কিছু জেনে শুনেও নাকি পানিসাগর পুলিশ নির্বিকার।তবে মাঝে মধ্যে নিজেদের জানান দিতে গিয়ে দু একজন নেশা কারবারি কে আটক করে লোক দেখানো নাটক মন্তস্থ করে নিজেদের অস্তিত্বকে জানান দিয়ে চলেছেন পানিসাগর থানার পুলিশ।এরই ফলশ্রুতিতে আজ দুপুর বারোটা নাগাদ পানিসাগর ধর্মনগর সড়কের টামটিলা এলাকা থেকে একটি স্কুটি সহ সুবল কান্তি নাথ কে বিভিন্ন ধরনের মোট ৭৬ বোতল বিলিতি মদ সহ গ্রেফতার করে পানিসাগর থানার পুলিশ।জানা গেছে ধৃত মদ ব্যাপারীর বাড়ি পানিসাগর নগর পঞ্চায়েত এলাকার সূর্যসেন পাড়াতে।ওর পিতার নাম ব্রজেন্দ্র চন্দ্র নাথ।বিলিতি মদ সহ কারবারিকে আটক করে পানিসাগর পুলিশ বাহবা কুড়ালেও অভিযোগ রয়েছে স্কুটি সমেত বদ ব্যাপারীকে জালে তুলে এনে পানিসাগর থানা থেকেই ভেইল বন্ডে মদ ব্যাপারী সহ স্কুটিটিকে ছেড়ে দেয় পানিসাগর থানার পুলিশ।প্রকাশ্য দিবা লোকে অবৈধ বিলিতি মদ সহ স্কুটি আটক করে কয়েক ঘন্টার মধ্যে ভেইল বন্ডে মুক্ত করে দেওয়াতে পানিসাগর পুলিশের সাফল্য নিয়ে গুঞ্জন চলছে।সাফল্যের অন্তরালে পুলিশি ব্যার্থতার প্রতিচ্ছবি বার বার পরিলক্ষিত হচ্ছে পানিসাগর মহকুমার পুলিশের বিরুদ্ধে।আগামী দিনে নেশা বিরোধী অভিযানে পানিসাগর থানার ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন চিহ্ন দেখা দিয়েছে।

Related Articles

যোগাযোগ রেখো

82,829ভক্তমত
834অনুগামিবৃন্দঅনুসরণ করা
1,320গ্রাহকদেরসাবস্ক্রাইব

সাম্প্রতিক প্রবন্ধসমূহ