21 C
Agartala
Sunday, February 25, 2024
- Advertisemet -spot_img

সংবাদের জেরে পূর্ণতা পেল ভালোবাসা

শ্যামলী ত্রিপুরা প্রতিনিধি, বিলোনিয়া ২৯ এপ্রিল।।ঝুমা ও সুমন ফেসবুকের ভালোবাসা পূর্ণতা পেল সংবাদমাধ্যম এবং সখি ওয়ান স্টপ সেন্টারে সহযোগিতা।
অবশেষে সংবাদ মাধ্যমের খবরের জেরে এবং সখি ওয়ান স্টপ সেন্টারের কর্মীদের সহযোগিতায় স্বামীর কাছ থেকে প্রতারিত হওয়া সখি ওয়ান স্টপ সেন্টারে আশ্রয় নেওয়া ঝুমা দাস চার দিন পর ফিরে পেলেন স্বামী সুজন পাল কে। স্বামীকে পেয়ে যেমন খুশি ঝুমা তেমনি ঝুমাকে আবার কাছে পেয়ে খুশি সুজন ও। দুইজনকে পুনরায় মিলিয়ে দিতে সক্ষম হওয়ায় স্বস্তি এবং খুশি ওয়ান স্টপ সেন্টারের কর্মীদের মধ্যে। ওয়ান স্টপ সেন্টারের ইনচার্জ আইনজিবি মামপি সোম জানান অসহায় ঝুমা এখানে আশ্রয় নেওয়ার পর থেকে ওকে বিভিন্নভাবে কাউন্সিলিং করা হয়েছে ওয়ান স্টপ সেন্টারে আশ্রয় দিয়ে। পাঁচ দিন ধরে থাকা খাওয়ার সব দায়িত্ব নিয়েছে সরকার অর্থাৎ সমাজ কল্যাণ ও সমাজ শিক্ষা দপ্তর। পাশাপাশি ব্যাঙ্গালোর থেকে হারিয়ে যাওয়া সুজনকে খুঁজে ফিরিয়ে আনতে সক্ষম হন তারা। আজ তাদের দুজনকে মিলিয়ে দিয়ে খুশি। তাদের আগামী ভবিষ্যৎ যাতে ভালো ও সুন্দর হয় সে প্রত্যাশাই করেন ওয়ানস্টপ সেন্টারের কর্মীরা। এদিন ঝুমা দাস এবং সুজন পাল দুজনেই একসাথে থেকে সংসার করতে চান বলে জানান পাশাপাশি যাদের প্রচেষ্টায় দুজন আবার এক হতে পেরেছেন তাদের সকলকে অভিনন্দন এবং ধন্যবাদ জানান। মাত্র এক মাস হতে চলল ওয়ান স্টপ সেন্টারের কর্মীরা দায়িত্ব হাতে নিয়েছেন। তার মধ্যে এটি তাদের প্রথম কেস। সুন্দরভাবে প্রথমবারই কেসটি সফলতার সাথে শেষ করতে পেরে নিজেদের গর্বিত এবং আনন্দিত বোধ করছেন। সেই সাথে ধন্যবাদ জানিয়েছেন দপ্তরের আধিকারিক সোহার্দ্য চক্রবর্তী এবং দক্ষিণ ত্রিপুরা জেলা পরিষদের সভাধিপতি কাকলি দাস দত্ত এবং সহকারী সভাধিপতি বিভিষণ চন্দ্র দাস কে। এরা কেসটি নিষ্পত্তি করতে এদেরকে মানসিকভাবে ভীষণভাবে সাপোর্ট দিয়েছেন বলে জানিয়ে।

Related Articles

যোগাযোগ রেখো

82,829ভক্তমত
834অনুগামিবৃন্দঅনুসরণ করা
1,320গ্রাহকদেরসাবস্ক্রাইব

সাম্প্রতিক প্রবন্ধসমূহ