29 C
Agartala
Friday, April 12, 2024
- Advertisemet -spot_img

মৃত ব্যক্তির চোখ, গালের মাংস উধাও মর্গে

Lশ্যামলী ত্রিপুরা প্রতিনিধি, পানিসাগর ২৭ মে ।।২৬ মে রাএিতে উওর জেলার পানিসাগর বি,জে,পি মন্ডল কার্যালয় সংলগ্ন আসাম আগরতলা জাতীয় সড়কে সুমেষ রায় নামের এক ব্যাক্তি নিজ স্কুটি নিয়ে যাবার পথে একটি কুকুরের সাথে সংঘর্ষে দূর্ঘটনাট কবলে পড়ে পানিসাগর বাজারের এক দোকানী।দূর্ঘটনার পরবর্তীতে আহত অবস্থায় প্রথমে পানিসাগর মহকুমা হাসপাতাল ও পরে ধর্মনগর জেলা হাসপাতালে নিয়ে গেলেও শেষ রক্ষা হয়নি।রাএি হওয়াতে পরিবারের লোকজন মৃতদেহ ধর্মনগরে জেলা হাসপাতালের মর্গে রেখে চলে আসে।আজ সকালে ময়না তদন্তের পর মৃতদেহ দেখে পরিবারের লোকজন আতকে উঠেন।তারা দেখতে পায় মৃত দেহের ডান চোখ নেই এবং ডান গালে বিশাল ক্ষত।এতেই পরিবারের লোকজন ক্ষিপ্ত হয়ে উঠে ডাক্তার সহ কর্তব্যরত পুলিশ ও ডোমের উপর।মৃতার পরিবারের পক্ষ থেকে অভিযোগ করে জানানো হয় অক্ষত অবস্থায় মৃত দেহ মর্গে তালা লাগানো অবস্থায় রেখে যাওয়ার পর মৃতদেহে কিভাবে এই ধরনের ক্ষতের সৃষ্টি হলো।এতে পুলিশ নাকি জানিয়েছে রাতে মৃতদেহ অক্ষত অবস্থায় ছিল ঠিকই ময়না তদন্তের পর মৃতদেহে ক্ষত দেখা গেছে।এমতাবস্থায় পরিবারের লোকজন শোকাহত বিভ্রান্তিকর পরিস্থিতিতে বাধ্য হয়ে স্মরনাপন্ন হয় স্থানীয় সযলবাদ মাধ্যমের নিকট।পরিবারের লোকজন অভিযোগ করে জানান মৃতদেহ মর্গে রাখার পর মর্গের পুরোপুরি দায়িত্ব থাকে পুলিশ এর উপর।তাছাড়া অতন্দ্র প্রহরারত অবস্থায় জেলা হাসপাতালের মর্গে থাকা মৃতদেহে কি করে ক্ষতবিক্ষত হলো।এরজন্য অভিযোগের তীর ধর্মনগর পুলিশ ও জেলা হাসপাতালের কর্তব্যরত কর্মীদের দিকেই নেওয়া হয়।তাই একটা সময় মৃতার পরিবারের পক্ষ থেকে পুলিশকে মৃতদেহ দ্বিতীয়বারের জন্য ময়না তদন্ত করার দাবি জানানো হয়।পরিশেষে সাংবাদিক পুলিশ ও মৃতার পরিবারের লোকজনদের মধ্যস্থতায় বিষয়টি তদন্তের দাবি জানানো হয়। পরিবারের লোকজন এই ঘটনায় লিখিত ভাবে অভিযোগ জানান ধর্মনগর থানায়। পরবর্তীতে পুলিশ মৃতদেহ পরিবারের হাতে তুলে দেয়। পরিবারের লোকজন এই ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত দাবি করেছেন এবং দোষীদের দৃষ্টান্ত মুলক শাস্তির দাবি জানিয়েছেন।শেষ পর্যন্ত জেলা হাসপাতালের মর্গে মৃতদেহ নিরাপওা হীনতায় কালিমালিপ্ত হওয়াতে জেলা স্বাস্থ্য আধিকারিক সহ জেলা পুলিশের কাণ্ডজ্ঞান হীনতার বহর জনসমক্ষে প্রশ্নচিহ্নের মুখে এসে পড়েছে। Est

Related Articles

যোগাযোগ রেখো

82,829ভক্তমত
834অনুগামিবৃন্দঅনুসরণ করা
1,320গ্রাহকদেরসাবস্ক্রাইব

সাম্প্রতিক প্রবন্ধসমূহ